শনিবার | ৮ মে, ২০২১ | ২৫ বৈশাখ, ১৪২৮
সময় নিউজ ২৪ > সাতক্ষীরা > আশাশুনিতে মৎস্যঘেরে প্রতিপক্ষের হামলা মারপিট লুটপাট ও ভাংচুর

আশাশুনিতে মৎস্যঘেরে প্রতিপক্ষের হামলা মারপিট লুটপাট ও ভাংচুর

আশাশুনিতে মৎস্যঘেরে প্রতিপক্ষের হামলা মারপিট লুটপাট ও ভাংচুর

ন্যাশনাল ডেস্ক: সাতক্ষীরার আশাশুনির পল্লীতে এক মৎস্য ঘেরের মালামাল লুট ও মৎস্যঘেরের নির্মাণকৃত বাসা ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এব্যাপারে ভুক্তভোগী নুর নাহার বাদী হয়ে থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করেছেন।

থানায় লিখিত অভিযোগে জানাগেছে, শুক্রবার গভীর রাতে ১০/১২ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল লাঠি-সোটা, লোহার রড ও চায়নিজ কুড়াল নিয়ে উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের তুয়ারডাঙ্গার মুরারীকাটি বিলে হাকিম মোল্যার পুত্র মুজিবর মোল্যার মৎস্য ঘেরে হামলা চালায়। এসময় নূর নাহার তার স্বামী মামলার আসামী হওয়ায় নিজেই ঘেরে অবস্থান করছিল। দূর্বৃত্তরা ঘেরে প্রবেশ করেই প্রথমে নূর নাহারকে মারপিট ও শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। একপর্যায়ে তার ঘেরের বাসায় বেড়া ও প্রয়োজনীয় মালামাল ভাংচুর করে তছনছ করে ফেলে নগদ টাকা ও মাছ লুটপাট করে নিয়ে যায়। তার ডাকচিৎকারে পাশর্^বর্তী লোকজন ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে। উল্লেখ্য, উপজেলার গদাইপুর গ্রামের সিরাজুল মোল্যার তুয়ারডাঙ্গা মৌজায় ২নং খতিয়ানে ১৬৮ দাগে ৮ বিঘা জমি নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে নূর নাহার মৎস্য ঘের করে আসছিল। প্রতিপক্ষদের ওই মৎস্য ঘেরের উপর দীর্ঘদিন কুনজর পড়ে। সে থেকে তারা একের পর এক ষড়যন্ত্র করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ঘটনার সময় প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে ঘেরে হামলার ঘটনা ঘটায়। এব্যাপারে নূর নাহার বাদী হয়ে আশাশুনি থানায় হামলাকারীদের আসামী করে একটি এজাহার দাখিল করেছেন বলে বাদীর পরিবার সূত্রে জানাগেছে।

 

আশাশুনি বিএনপি নেতা মেম্বর নজরুল ইসলাম আর নেই
আশাশুনির দরগাহপুর ইউপির সাবেক মেম্বর ও বিএনপি নেতা নজরুল ইসলামের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত্র সোয়া ৩টার দিকে তিনি ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজেউন)। ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জি,এম নজরুল ইসলাম (৫৫) গত ৫ দিন আগে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। শুক্রবার বাদ জুম্মা গুনাকরকারি খানকায়ে আজিজীয়ার মুরীদ মাওঃ আরিফুল্লাহর ইমামতিতে নামাজে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তান রেখে গেছেন। মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিবৃতি দিয়েছেন, আশাশুনি উপজেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি স,ম হেদায়েতুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস সহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

কমেন্টস

Leave a comment

x