শুক্রবার | ২৩ এপ্রিল, ২০২১ | ১০ বৈশাখ, ১৪২৮
সময় নিউজ ২৪ > দেশ ও জনপদ > আশাশুনির তেঁতুলিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি টানিয়ে ঘর দখলের অভিযোগ

আশাশুনির তেঁতুলিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি টানিয়ে ঘর দখলের অভিযোগ

আশাশুনির তেঁতুলিয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি টানিয়ে ঘর দখলের অভিযোগ

জিএম আল ফারুক, আশাশুনি (সাতক্ষীরা): আশাশুনির কাদাকাটি ইউনিয়নের মিত্র তেঁতুলিয়া বাজারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জমি প্রদান করেছেন দাবী করে প্রধানমন্ত্রীর ছবিসহ জমিদানের তথ্য ছাপিয়ে সাইন বোর্ড টানিয়ে ভীত করা ঘরসহ জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বাজারের বহু ব্যবসায়ী, স্থানীয় সাধারণ মানুষ, জন প্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ জানান, বাজারের পূর্বপাশের অংশে খাস জমিতে দোকান করার জন্য সাজ্জাত দিং ঘরের কাজ শুরু করান। ইতোমধ্যে ভীতের কাজ করা হয়েগেছে। ঘরের দক্ষিণ পাশে অন্য দোকানে যাতয়াতের জন্য গলুই পথ রাখা হয়। কিন্তু গত ১৫ দিন পূর্বে সেখানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নূর ইসলাম গাজীকে ২ কাঠা ও রবিউল ইসলাম গাজীকে ২ কাঠা মোট ৪ কাঠা জমি দিয়েছেন দাবী করে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ছাপানো সাইনবোর্ড স্থাপন ও বেড়া দিয়ে ভীত দখল করা হয়। একই সাথে পাশের গলুই পথে টিনের ঘর নির্মান করে দখল নেওয়া হয়।

এব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান দীপঙ্কর কুমার সরকার দিপ জানান, বিষয়টি নিয়ে পরিষদে সালিশী বৈঠক করা হয়। নূর ইসলাম ও রবিউল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর ১৭/০১/২১ তারিখ খাস জমি বরাদ্দের আবেদন করেছেন কাগজ দেখান। তাদের কোন জমি একসনা বা চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত দেওয়া হয়নি। শালিসে তাদেরকে সাইনবোর্ড ও ঘেরাবেড়া খুলে নিতে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। কিন্তু তা করেনি। ইউনিয়ন ভ‚মি সহকারী কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার জানান, আমার জানামতে তাদেরকে কোন জমি অফিস থেকে দেওয়া হয়নি। ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আসিব ইকবাল রিপন জানান, মিথ্যা তথ্য দিয়ে জাতির জনক ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করে বাজারের মধ্যে বসবাসের নামে খাস জমি দখলের ঘটনা দলের ও প্রধানমন্ত্রীর ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করা হয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আয়ুব আলি জানান, বাজারের মধ্যে স্ত্রী-কন্যা নিয়ে বসবাসের ঝুঁকি ও সমস্যা রয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদে শালিসের মাধ্যমে তাদেরকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত সাইনবোর্ড ও বেড়া খুলে নিতে সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়। চেয়ারম্যান তাদেরকে বসবাসের জন্য পৃথক স্থানে ব্যবস্থা করবেন বলে আশ্বস্থও করেন। কিন্তু তারা শালিসের সিদ্ধান্ত অমান্য করে বিশৃংখলা সৃষ্টির পথে এগুচ্ছে। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহনের জন্য এলাকাবাসী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

আশাশুনিতে করোনা আক্রান্ত দীনবন্ধু হোম কোয়ারিন্টিনে
আশাশুনিতে মহামারী করোনার দ্বিতীয় দফায় করোনা আক্রান্ত দীনবন্ধু মন্ডলকে হোম কোয়ারিন্টিনে রাখা হয়েছে। উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের মহেশ্বরকাটি গ্রামের মৃত কিষ্টপদ মন্ডলের পুত্র দীনবন্ধু মন্ডল অসুস্থ হয়ে অপারেশনের জন্য খুলনা গিয়েছিল। সেখানে ২৪ মার্চ বিভিন্ন টেষ্টের পর করোনা পজেটিভ রিপোর্ট আসে। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ২৫০ বেড হাসপাতালে তাকে রিফার করেন। কিন্তু দীনবন্ধু হাসাপাতালে না গিয়ে পালিয়ে বাড়িতে চলে আসেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজমুল হুসেইন খাঁন রোগিকে হোম কোয়ারিন্টিনে থাকার ব্যবস্থা করেন এবং বাড়িতে লাল পতাকা উঠানো হয়েছে।

কমেন্টস

Leave a comment

x