মঙ্গলবার | ১১ মে, ২০২১ | ২৮ বৈশাখ, ১৪২৮
সময় নিউজ ২৪ > গাইবান্ধা > গাইবান্ধার সেই পিআইও’র করা মানহানির দুই মামলায় কোনো আদেশ হয়নি আদালতে

গাইবান্ধার সেই পিআইও’র করা মানহানির দুই মামলায় কোনো আদেশ হয়নি আদালতে

গাইবান্ধার সেই পিআইও’র করা মানহানির দুই মামলায় কোনো আদেশ হয়নি আদালতে

মাসুম বিল্লাহ, গাইবান্ধা: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সাবেক প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে ঘুষ-দুর্নীতির সংবাদ প্রচারের কারণে ১২ সাংবাদিকের নামে দায়ের করা মানহানির মামলা দুটিতে কোনো আদেশ হয়নি আদালতে। তবে বিবাদীদের প্রতি সমন জারির প্রক্রিয়ার পুর্বের আদেশ তাগিদ করেছে আদালত। এছাড়া মামলার পরবর্তী শুনানীর দিনও ধার্য করেনি আদালত।

মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) দুপুরে রংপুর মেট্রোপলিটন সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট-৩ আদালতে মামলা দুটির শুনানী হয়। এর আগে, তদন্ত প্রতিবেদন পেয়ে মামলার বিবাদীদের প্রতি সমন জারির আদেশ দেয় আদালত। গত ১৪ মার্চ ওই সমন নোটিশ ইস্যু করা হয়। মামলার দুটির পূর্ব নির্ধারিত ধার্য্য তারিখ ছিলো ২৩ মার্চ। বাদি পক্ষে আদালতে মামলা দুটির শুনানী করেন এ্যাডভোকেট মো. শফিকুল ইসলাম। এসময় বাদি পিআইও নুরুন্নবী সরকার আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

বিবাদী পক্ষের আইনজীবি মো. রবিউল ইসলাম ও ফরহাদ হোসেন লিটু এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, শুনানী শেষে আদালত মামলা দুটির বিষয়ে কোনো আদেশ দেয়নি। তবে আদালত পুর্বের সমন জারির আদেশ প্রক্রিয়া সম্পূন্নর তাগিদ দেয়। এছাড়া আদালত মামলার পরবর্তী শুনানীর দিনও ধার্য্য করেনি। তারা আরও জানান, মামলা দুটির সমন জারির আদেশ সম্পর্কে কিছুই জানেন না বিবাদীরা। আদালতের সমন নোটিশও পায়নি তারা।

২০১৯ সালের ১৫ অক্টোবর পিআইও নুরুন্নবী সরকার রংপুর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোতোয়ালী আমলী আদালতে মামলা দুটি করেন। আদালতের নির্দেশে মামলাটি তদন্ত করে রংপুর পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। তদন্ত শেষে গত বছরের ডিসেম্বরে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেয় তদন্তকারী কর্মকর্তা। এতে সাতজনকে অব্যহতি দেওয়া হয়। বর্তমান বিবাদীগণ হলেন, যুমনা টিভির গাইবান্ধার প্রতিনিধি জিল্লুর রহমান পলাশ, কালের কণ্ঠের সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি শেখ মামুন-উর-রশিদ, ভোরের দর্পনের সুন্দরগঞ্জ প্রতিনিধি সামছুল হক, চাঁদনী বাজারের প্রতিনিধি আবু জায়েদ কারী ও মানবাধিকারকর্মী মাহাবুর রহমান।

এদিকে সম্প্রতি সুন্দরগঞ্জের সাবেক এই প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অসদাচরণের দায়ে (শৃঙ্খলা ও অপীল) বিধিমালা-২০১৮ মোতাবেক বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়েছে। একই সঙ্গে স্থায়ীভাবে লঘু-দন্ড হিসেবে নুরুন্নবী সরকারের বেতন গ্রেডের নিম্নতর ধাপে অবনমিতকরণ (১০ম গ্রেডের প্রারম্ভিক বেতন) নির্ধারণ করা হয়েছে। অথাৎ তিনি ১০ম গ্রেডের প্রারম্ভিক বেতন পাবেন। বর্তমানে নুরুন্নবী সরকার রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত।

 

কমেন্টস

Leave a comment

x