মঙ্গলবার | ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ | ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮
সময় নিউজ ২৪ > খুলনা > ডুমুরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীর উপর পরাজিত প্রার্থীর হামলার ঘটনায় মানববন্ধন

ডুমুরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীর উপর পরাজিত প্রার্থীর হামলার ঘটনায় মানববন্ধন

ডুমুরিয়ায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থীর উপর পরাজিত প্রার্থীর হামলার ঘটনায় মানববন্ধন

ডুমুরিয়া (খুলনা) প্রতিনিধি: খুলনার ডুমুরিয়ার সাহস ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের নব-নির্বাচিত ইউপি মেম্বর ও আওয়ালীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম সরদার ও তার কর্মীদের উপর পরাজিত প্রার্থী সহিদুল ইসলাম সরদার ও তার কর্মীদের হামলার ঘটনায় মামলার আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার,হামলায় ব্যাবহৃত দেশীয় অস্ত্র-স্বস্ত্র উদ্ধারের দাবীতে সমাবেশ ও মানব বন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে।
আজ বৃহস্পতিবার(১৮নভেম্বর) ১নং সাহস ওয়ার্ড বাসীর ব্যানারে খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের ডুমুরিয়া চৌরঙ্গী মোড়ে সকাল সাড়ে ১১ টা হতে বেলা ১টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত মানব বন্ধন কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে হাতপাখা প্রতিকের প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সরদার মোজাফফর হোসেন,মাস্টার নজরুল ইসলাম,শারীরিক প্রতিবন্ধী ও হামলার শিকার আজহারুল ইসলাম সরদার,হাফিজুর রহমান ডালিম,নীলিমা বেগম,সাব্বির সরদার প্রমূুখ।
মানব বন্ধন কর্মসূচীতে দাঁড়িয়ে ঘটনার বর্ণনায় নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম সরদার অভিযোগ করে বলেন, ভোটের পরদিন অর্থাৎ গত ১২ নভেম্বর সকালে নির্বাচনে আমার প্রতিদ্বন্দ্বী পরাজিত প্রার্থী সহিদুল ইসলাম সরদার,তার ভাই কামরুল ইসলাম সরদার,এলাকার অবৈধ অস্ত্রধারী কুখ্যাত সন্ত্রাসী বহু মামলার আসামী দেলোসহ অন্তত ৩৫ জন আমার কর্মী সাইফুল ইসলামসহ অন্যানদের মারপিটের উদ্যেশ্যে তাদের বাড়িঘর ঘিরে রাখে। আমি খবর পেয়ে আমার লোকজন নিয়ে তাদের উদ্ধার করতে ঘটনা স্হলে গেলে সহিদুল ও তার সহযোগীরা আমাকে সহ আমার অন্তত ৮/১০ কর্মীকে মারপিট করে গুরুত্বর জখম করে।
স্থানীয় লোকজন আমাদের উদ্ধার করে ডুমুরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলাকারীদের ৯ জনকে আটক করে। এই ঘটনায় আমার ভাই আতাউর রহমান বাদী হয়ে ২০ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত নামা ১৪/১৫ জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ধৃত আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে বের হয়ে এসে এবং পলাতক অন্যান আসামীরা আমাকেসহ আমার কর্মী সমর্থকদের নানা বিধ হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। আর তাদের ইন্ধনদাতা ও অর্থ যোগানদাতা হিসেবে এলাকার অবৈধ কালো টাকার মালিক ও ব্যবসায়ী তোফাজ্জেল হোসেন তোফা নেপথ্যে ভূমিকা রাখছে।
বক্তাগণ অবিলম্বে অন্যান আসামীদের গ্রেফতার,অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার এবং ঘটনার সাথে জড়িতের আইনের আওতায় এনে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছেন।

Share this:

কমেন্টস

Leave a comment

x