মঙ্গলবার | ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | ৬ আশ্বিন, ১৪২৮
সময় নিউজ ২৪ > কৃষি > তালায় আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষক: একাংশের হতাশা

তালায় আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষক: একাংশের হতাশা

তালায় আমন ধান রোপনে ব্যস্ত কৃষক: একাংশের হতাশা

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার তালা উপজেলায় সোনালী স্বপ্ন নিয়ে আমনের চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার বীজতলার কোনো ক্ষতি হয়নি। শ্রাবণ মাসের বৃষ্টির পানি কাজে লাগিয়ে কৃষকরা আমন ধান রোপণ করছেন। এবার বর্ষা মৌসুমে ভালো বৃষ্টিপাত হওয়ায় আবাদি জমিতে বাড়তি পানি সেচ দিতে হচ্ছে না। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে কৃষকরা দ্রুত আমনের চারা রোপণ করছেন।

তালা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি রোপা আমন মৌসুমে তালা উপজেলায় ৮ হাজার ৭শ’ হেক্টর জমিতে ধান চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ উপজেলায় বেশিরভাগ জমিতে কৃষকরা বিনা-৭, বিনা-১৭, ব্রি-ধান-৪৯, ব্রি-ধান-৭০, ব্রি-ধান-৮০, ব্রি-ধান-৮৭, চারা রোপণ করেছেন।

উপজেলার খলিলনগর ইউনিয়নের গোনালী গ্রামের সত্যরঞ্জন ঘোষ জানান, এ বছর ধানের দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকদের মাঝে আমন চাষাবাদে আগ্রহ বেড়েছে। যদিও আমনে উৎপাদন ব্যয় কম কিন্তু ফলন বেশি ভালো হয়। এ উপজেলায় প্রতি বছর আমণ ধানের বাম্পার ফলন হয়ে থাকে।

এ বছর অনেক কৃষকরা তাদের লক্ষ্য মাত্রা অনুযায়ী জমি রোপন করেও চারা বিক্রয় করতে পারবে বলে এলাকার কৃষকরা জানিয়েছে।

আগোলঝাড়া গ্রামের শাহাবুদ্দিন শেখ জানান, তার চার বিঘা জমিতে আমন ধানের চারা রোপণ করা শেষ হয়েছে, আশা রাখি ভালো ফলন পাবো এবছর।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ হাজিরা খাতুন জানান, কৃষকরা আমন ধানের চারা রোপণের জন্য পুরোদমে কাজ শুরু করেছেন। এ ছাড়াও যে কোন সমস্যা সমাধানে কৃষি অফিস সব সময় কৃষকদের পাশে রয়েছে। প্রাকৃতিকভাবে কোন দুর্যোগ না হলে যথাসময়ে কৃষকরা তাদের মাঠের ফসল কেটে ঘরে তুলতে পারবে বলেও তিনি বলেন।

বুধবার সকালে উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলে ঘুরে দেখা গেছে, কৃষকরা আমণ ধান রোপনের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে কিছু কিছু এলাকায় ভিন্ন চিত্রও চোখে পড়েছে। উপজেলার জালালপুর ইউনিয়নের কানাইদিয়া গ্রামে কতিপয় প্রভাবশালীরা পানি না সরিয়ে অনেক আবাদি জমিতে অবৈধভাবে মৎস্য চাষ করছেন। এতে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন এলাকার সাধারণ কৃষকরা। এনিয়ে সেলিম, হালিম, আক্কাজ সহ অনেকে জানান আমন ধান রোপনের মৌসুম শেষ হতে চললেও এখন পর্যন্ত চারা রোপণ করতে পারেননি তারা। এছাড়াও তালার হাতবাস, ছোট লাউতাড়া ও মদনপুরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত প্রবাহিত খাস খালের মুখে বাঁধ দিয়ে দখল করে মৎস্য ঘের করা ও হাজার হাজার একর ফসলী জমি নষ্ট করার অভিযোগও পাওয়া গেছে।

অভিযোগের বিষয়ে তালা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ তারেক সুলতান বলেন, এমন কোন অভিযোগ আমার কাছে আসেনি। যদি ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে থেকে অভিযোগ পাই তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Share this:

কমেন্টস

Leave a comment

x