সোমবার | ৬ এপ্রিল, ২০২০ | ২৩ চৈত্র, ১৪২৬
সময় নিউজ ২৪ > ক্রিকেট > কলারোয়ায় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর সংবর্ধনা

কলারোয়ায় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর সংবর্ধনা

কলারোয়ায় অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর সংবর্ধনা

শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, কলারোয়া (সাতক্ষীরা): কলারোয়ায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য সাতক্ষীরার কলারোয়ার ছেলে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীকে নিজ চোখে দেখার সুযোগ এতোটুকু হাতছাড়া করেনি কলারোয়ার ক্রিকেট অনুরাগীরা। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের প্রতিভাবান এই পেসারকে বরণ করে নিতে বৃহস্পতিবার কলারোয়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে নামে তারুণ্যের ঢল। ব্যান্ড, বাদ্য-বাজনায় মুখরিত হয়ে যায় গোটা চত্বর। সুদূর দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারতকে হারিয়ে আইসিসি-১৯ বিশ্বকাপ ট্রফি জিতে আসা দলের অন্যতম সদস্য কলারোয়ার ঘরের ছেলে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীকে ঘিরে এক উৎসবমুখরতা ছড়িয়ে পড়ে। দুপুর পৌণে ১টার দিকে পিকআপ, মোটর বাইক ও মাইক্রোবাস শোভাযাত্রা সহকারে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামের অনুষ্ঠানস্থলে আসেন মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী। এরপর শুরু হয় তরুণদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস। স্মার্টফোনে ছবি তোলা ও অটোগ্রাফ নিতে প্রত্যেকে ভীষণ আগ্রহী হয়ে পড়ে। তারুণ্যের এই উচ্ছ্বাস ও স্বত:স্ফূর্ততা জানিয়ে দেয় এ প্রজন্ম ক্রিকেট ও ক্রিকেটারদের কতো ভালোবাসে। উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরএম সেলিম শাহনেওয়াজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে ফার্স্ট বোলার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী বলেন, দেশের হয়ে খেলতে পারাটা সত্যিই গর্বের। এলাকার মানুষের ভালোবাসা ও আশীর্বাদ থাকায় আমি ভালো পারফর্ম করতে পেরেছি। আশা করি আগামীতে আমি আরও ভালো কিছু করে দেখাতে পারবো। তিনি বলেন, বিশ্বকাপে ৩ টি ম্যাচ খেলার পর তিনি ইনজুরির কবলে পড়েন। তা না হলে তার অর্জনে ঝুলি আরও সমৃদ্ধ হতো বলে তার বিশ্বাস। বাংলাদেশে ফিরে আসার পর তার শোল্ডারের স্ক্যানিং করানো হয়েছে। তবে বেটার ট্রিটমেন্টের জন্য তাকে অস্ট্রেলিয়ায় যেতে হতে পারে বলে তিনি জানান। তিনি সকলের এই প্রাণঢালা ভালোবাসায় আপ্লুত হয়ে বলেন, আপনাদের ভালোবাসা আছে বলেই ভালো খেলার প্রেরণা পাচ্ছি প্রতিনিয়িত। অনুষ্ঠানে পুস্পস্তবকের পাশাপাশি উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে স্মারক ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আয়োজনে সহযোগিতায় ছিলো উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা, কলারোয়া ক্রিকেট একাডেমি, তুলসীডাঙ্গা ক্রিকেট ক্লাব। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আক্তার হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর-উল-গীয়াস, চন্দনপুর ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম মনি। ক্রীড়া সংগঠক শেখ শাহাজাহান আলি শাহিন ও সহকারী অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর বড় ভাই ইমরুল হাসান চৌধুরী, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রধান শিক্ষক মুজিবুর রহমান, কলারোয়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি আজাদুর রহমান খান চৌধুরী, সাংবাদিক শেখ জুলফিকারুজ্জামান জিল্লু, প্রভাষক আরিফ মাহমুদ, এমএ সাজেদ, জাকির হোসেন, জুলফিকার আলী, ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব রমজান আহমেদ, নাজমুল হাসনাঈন মিলন, উপজেলা সাংবাদিক পরিষদের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ, সাংবাদিক শেখ রাফাত, ডা: রেজাউল করিম করিম রেজা প্রমুখ। উল্লেখ্য, অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর বাড়ি উপজেলার সীমান্তবর্তী হিজলদি গ্রামে। তার পিতার নাম মাস্টার তাহাজ্জদ হোসেন ।

কমেন্টস

Leave a comment